বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন

এবার বিশেষ একটি বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা চাইলেন জেনারেল আজিজ আহমেদ

রাষ্ট্রীয় সফরে যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কিছু দিন ধরে অবস্থান করছেন দেশের সেনা প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। আর এই সফরে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ন বিষয়ে হয়েছে নানা ধরনের আলোচনা।

যুক্তরাষ্ট্রে সফররত বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ মার্কিন সেনাপ্রধান জেনারেল ম্যাক কনভিলসহ উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

এসময় বাংলাদেশের সেনাপ্রধান, বঙ্গবন্ধু হ*** মৃ’/ত্যু’/দ’/ণ্ড’/প্রা’/প্ত’/ পলাতক আসামি রাশেদ চৌধুরীকে দ্রুত বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।

রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতরের (আইএসপিআর) পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

সফরে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সামরিক স্থাপনা পরিদর্শন করেন। উল্লেখযোগ্য, সামরিক স্থাপনা সমূহের মধ্যে রয়েছে ইউএস আর্মি সাইবার কমান্ড, ইন্টেলিজেন্স এন্ড সিকিউরিটি কমান্ড,

ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ড, ম্যানুভার সেন্টার অব এক্সিলেন্স, জরজিয়া এবং জয়েন্ট রেডিনেস ট্রেনিং সেন্টার, লুসিয়ানা।

এছাড়া সেনাবাহিনী প্রধান যুক্তরাষ্ট্রের ডেপুটি এ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি, অফিস অব দ্যা সেক্রেটারি অব ডিফেন্স ফর পলিসি-সাউথ এন্ড সাউথইস্ট এশিয়া এবং ডিফেন্স সিকিউরিটি কো-অপারেশন এজেন্সির প্রতিনিধির সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

এসময় যুক্তরাষ্ট্র এবং বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর মধ্যকার পারস্পরিক সহযোগিতামূলক বিভিন্ন বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়। রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র বরাবরের মতো বাংলাদেশের পাশে থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান আশা প্রকাশ করেন। বিশেষভাবে, বঙ্গবন্ধু হ** মৃ’/ত্যু’/দ’/** /প্রা’/প্ত পলাতক আসামি রাশেদ চৌধুরীকে দ্রুত বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন।

গত মঙ্গলবার মার্কিন সেনাপ্রধানের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধানকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। পরে দুই দেশের সেনাপ্রধানের মধ্যে সৌজন্য সাক্ষাতে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতামূলক বিভিন্ন বিষয় ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

আলোচনায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান দুই দেশের মধ্যে মিলিটারি এক্সপার্ট এক্সচেঞ্জ, জাতিসংঘে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষীদের মোতায়েন এবং কাউন্টার টেরোরিজম ও সাইবার ওয়ারফেয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে মার্কিন সেনাবাহিনীর সহযোগিতার বিষয়ে বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন।

ভবিষ্যতে মার্কিন সেনাবাহিনীর বিভিন্ন সামরিক প্রশিক্ষণে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধি পাবে বলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান আশা প্রকাশ করেন।

সেনাবাহিনী প্রধান এই সপ্তাহে জাতিসংঘের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এখনো তিনি অবস্থান করছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। আরো বেশ কিছু দিন সেখানে অবস্থান করবেন তিনি। জানা গেছে রাষ্ট্রীয় সব কাজা সেরে আগামী ১২ তারিখে দেশের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন তিনি। এবং এ নিয়ে দেশে বিস্তারিত কথা বলবেন তিনি।


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।