রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৪০ পূর্বাহ্ন

হঠাৎ গোলমেলে বিএনপি

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকা:  কারাবন্দি খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে দীর্ঘদিন ধরে বিএনপিতে স্থবিরতা বিরাজ করছে। আন্দোলন কর্মসূচি তো নেই-ই, উল্টো গৃহদাহের আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে। সম্প্রতি দলটিতে হঠাৎ ছন্দপতন দেখা দিয়েছে। অনেকে তাতে বিদ্রোহের ‘আলামত’ও দেখতে পাচ্ছেন।

সম্প্রতি প্রায় একসঙ্গে দল থেকে পদত্যাগ করেন সাবেক সেনাপ্রধান লে. জেনারেল (অব) মাহবুবুর রহমান এবং মোরশেদ খান। তাদের এই পদত্যাগ যে একান্ত ব্যক্তিগত কারণে নয়, তা তাদের বক্তব্যে উঠে এসেছে। দলের একাধিক নেতা জানিয়েছেন, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ওপর নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের এবং সিনিয়র ও মধ্য সারির অনেক নেতাই রুষ্ট। দুই নেতা পদত্যাগের মাধ্যমে তা প্রকাশ করেছেন; আরও কয়েকজন সেদিকেই এগোচ্ছেন।

দলের নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো বলছে, তারেক রহমানের নানা কর্মকাণ্ড ও সিদ্ধান্তে দলের সিনিয়র নেতারা চরম ক্ষুব্ধ। অনেকেই দলীয় কার্যক্রম থেকে নিজেদের দূরে রাখছেন। এভাবে চলতে থাকলে বিএনপির রাজনীতির আকাশের কালো মেঘ স্থায়ীভাবে সবকিছুকে ঢেকে দেবে। পরে সেই মেঘ সরিয়ে সুদিন ফেরানো কঠিন হবে।

অনুসন্ধানে জানা যায়- চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে রাজপথে দৃশ্যমান আন্দোলন কর্মসূচি না দেওয়া, খালেদা জিয়াকে ছাড়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ, ‘অকারণে’ মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়া ও দল পুনর্গঠনসহ দলীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণে সিনিয়র নেতাদের অবজ্ঞা, সম্প্রতি অভিজ্ঞদের বাদ দিয়ে দুই নেতাকে স্থায়ী কমিটিতে নিয়োগ দেওয়া। এসব ক্ষোভের পাশাপাশি নিজেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান টিকিয়ে রাখা ও মামলা-হামলা থেকে রক্ষা পেতেও কয়েকজন পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে।

নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কয়েকজন নেতার সঙ্গে আলাপকালে তারা বলেন, বর্তমানের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা প্রায় সবার। কিন্তু খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে দলের বিপদে এই কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে চাচ্ছেন না। বেইমান তকমাও লাগাতে চাইছেন না। ওই সব নেতা বলেন, অবস্থা এমন জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে, খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে পদত্যাগ করলে নেতাকর্মী ও দেশের মানুষের কাছে তাদের বেঈমান হতে হবে। আবার যেভাবে দল চলছে, তাতে সম্মান নিয়ে রাজনীতি করা আরও কঠিন হয়ে পড়েছে।

নেতাদের কয়েকজন বলেন, জ্যেষ্ঠ নেতাদের প্রতি তারেক রহমানের অবজ্ঞা, তাদের গুরুত্ব না দেওয়া এবং নিজের মতো সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়ে তারা খুবই ক্ষুব্ধ। তা ছাড়া ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তার নিজ বলয়ের বাইরে কাউকে গুরুত্ব দেন না, বরং নানাভাবে অপদস্থ করছেন।

অবশ্য সিনিয়র নেতাদের পদত্যাগে ‘অখুশি’ নন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তার ঘনিষ্ঠরা জানান, তারেক রহমান মনে করেন, সিনিয়র অনেক নেতার মধ্যে রাজনৈতিক কমিটমেন্টের অভাব আছে।

নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ এক নেতা বলেন, মাহবুবুর রহমান ও মোরশেদ খান সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। মাহবুবুর রহমান সাবেক সেনাপ্রধান হওয়ায় সেনাবাহিনীতে তার মর্যাদা ও গুরুত্ব অনেক। চীনের সঙ্গে তার যোগাযোগ খুবই নিবিড়। মোরশেদ খানের সঙ্গে ভারত ও জাপানের সঙ্গে সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ।

সাবেক এই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোর যোগাযোগ বেশ ভালো। যারা দল ছেড়ে যাচ্ছেন অথবা যেতে চাচ্ছেন, দেশে ও বিদেশে তাদের গুরুত্ব পরিচিতি আছে। এভাবে তারা দল ছেড়ে গেলে তারেক রহমান ও দলের জন্য কোনো শুভ বার্তা নয়। শুধু নিজের লোক দিয়ে রাজনীতি হয় না, যোগ্য লোকেরও প্রয়োজন আছে।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত সিনিয়র নেতাদের মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, মোসাদ্দেক আলী ফালু, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, শোকরানার মতো গুরুত্বপূর্ণ নেতা পদত্যাগ করেছেন। সর্বশেষ গত ৫ নভেম্বর বিএনপি ছাড়েন ভাইস চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খান, পরদিন দুই মাস আগে পদত্যাগপত্র দেওয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান লে.জে মাহবুবুর রহমান।

বিএনপির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ‘একাদশ নির্বাচনের পর তারেক রহমানসহ বর্তমানে যারা দল পরিচালনার সঙ্গে জড়িত, তারা পদপদবি ধরে রাখতে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে দৃশ্যমান রাজপথে কোনো কর্মসূচি না দিয়ে গা বাঁচিয়ে চলছেন। এটি খালেদা জিয়ার প্রতি চরম অপমান।’

এ অবস্থায় চারদিকে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে, বিএনপি থেকে ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, ব্যারিস্টার শাজাহান ওপর বীরউত্তম, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীরবিক্রম, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনসহ বেশ কিছু সিনিয়র নেতা যে কোনো সময় পদত্যাগ করছেন।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর//জেসি/আরএম


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।