রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন

কাশ্মীরে সংঘর্ষ শুরু : নিহত ১ আহত ৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে দেওয়ার ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর শ্রীনগরে কারফিউ’র মধ্যে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ১ বিক্ষোভকারী নিহত ও ৬ জন আহত হয়েছে।বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভকারীরা নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে।

সোমবার কাশ্মীরের ওপর থেকে ভারত বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার পর থেকেই থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে সেখানে। ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর কাশ্মীর কার্যত বাকি বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। কিন্তু এর মধ্যেও বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ ও নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর পাথর ছোঁড়ার ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানের রাজনীতিবিদ, উপদেষ্টা এবং বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাসহ এখন পর্যন্ত চার শতাধিক মানুষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুরো কাশ্মীরই যেন এক কারাগারে পরিণত হয়েছে। সেখানকার বিভিন্ন হোটেল, গেস্ট হাউস, সরকারি এবং বেসরকারি ভবনগুলোকে অস্থায়ী কারাগার বানানো হয়েছে।

বিক্ষোভে অংশ নিয়ে একজনের নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে পুলিশ। একটি সূত্র এএফপিকে জানিয়েছে, শ্রীনগরে পুলিশের গুলিতে আরও ছয়জন আহত হয়েছে। তাদের শ্রীনগরের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শ্রীনগর এবং কাশ্মীরের উত্তর ও দক্ষিণের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ এবং নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর পাথর ছোড়ার খবর পাওয়া গেছে। রাস্তায় সর্বত্র হাজার হাজার সেনা, পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী বাহিনী টহল দিচ্ছে। সব রাস্তা বন্ধ করে রাখা হয়েছে। সর্বত্র কারফিউ জারি করা হয়েছে। কাউকে ঘর থেকে বের হতে দেয়া হচ্ছে না।

ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের আগে রোববার সন্ধ্যা থেকেই কাশ্মীরে টেলিফোন, মোবাইল এবং ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত একই পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এখনও সেখানকার কেউ কারো সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না।

এদিকে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, কাশ্মীরের বিরুদ্ধে এমন পদক্ষেপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে ভারত। একই সঙ্গে কাশ্মীরে ভারতের জাতিগত নিধনের আশঙ্কাও ব্যক্ত করেছেন ইমরান খান।

৪৭-এর দেশ বিভক্তির পর থেকেই কাশ্মীর এক রক্তা্ক্ত জনপদের নাম। কাশ্মীর নিয়ে বিতর্ক তখন থেকেই।সংবিধানের ৩৭০ ধারার ভিত্তিতে বিশেষ মর্যাদা ছিলো কাশ্মীরের। কিন্ত গত সোমবার এই অনুচ্ছেদ বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হয়। যার কারণে কাশ্মীরের জনগণ বিক্ষুধ্ধ হয়ে ওঠে।

উপত্যকার সমস্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ থাকলেও কোনো না কোনো ভাবে অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের মত তুলে ধরতে পারছেন। যেমন এর আগে ওমর আবদুল্লাহ, মেহবুবা মুফতিও এই যোগাযোগহীন অবস্থায় টুইট করেছেন। তেমন ভাবেই ফেসবুকে লিখেছেন ফয়সালও।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর//জেএন/এএমসি/এবিএম


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।