রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন

বাবরি মসজিদ মামলার শুনানি শেষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  অযোধ্যার বিতর্কিত রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ ভূমি বিরোধ সংক্রান্ত মামলার শুনানি শেষ হয়েছে। তবে রায় অপেক্ষমাণ রেখেছেন সুপ্রিম কোর্ট।

গতকাল বুধবার (১৬ অক্টোবর) নির্ধারিত সময়ের আগেই শুনানি শেষ হয়। ৩৯ দিন টানা শুনানির শেষে ৪০ দিনের মাথায় এদিন শুনানি শেষের নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ।

সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে বুধবার মামলার শুরুতেই আরও সময় চাওয়া হলেও প্রধান বিচারপতি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন,‘‌যথেষ্ট হয়েছে। বিকেল পাঁচটায় শুনানি শেষ হতেই হবে।’

সে মতোই শুনানি শেষ হল। তবে  রায় হতে পারে কমপক্ষে ২৩ দিন পর। আগামী ১৭ নভেম্বর অবসর নিচ্ছেন প্রধান বিচারপতি গগৈ। রায় ঘোষণা হতে পারে তার আগেই।

বুধবার ভূমি নিয়ে বিবদমান পক্ষগুলোর মধ্যে মধ্যস্থতার চেষ্টা করা প্যানেলেরও তাদের দ্বিতীয় দফা মধ্যস্থতা সংক্রান্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দেওয়ার কথা ছিল।

এর আগে পরশু মঙ্গলবারের (১৫ অক্টোবর) শুনানিতে দু’পক্ষের আইনজীবীদের মধ্যে তীব্র বাদানুবাদ শুরু হয়। সেই শুনানি শেষেই বুধবার ‘শুনানি শেষ’ করার কথা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি।

সপ্তাহব্যাপী দশেরা উৎসবের ছুটি শেষে চলতি সপ্তাহের সোমবার থেকে সংবেদনশীল এ মামলার শেষপর্বের শুনানি শুরু হয়।

এ পর্বে মুসলিম প্রতিনিধিরা আদালতকে বলেন, ১৯৮৯ সালের আগে অযোধ্যার এ স্থানকে হিন্দুরা কখনোই রামের জন্মভূমি হিসেবে দাবি করেনি। তারা ১৯৯২ সালের ডিসেম্বরে ভেঙে ফেলা বাবরি মসজিদকে আগের স্থানেই পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি জানান।

বিতর্কিত এ রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ ভূমি বিরোধ মামলার রায় নিয়ে যেন কোনো ধরনের অস্থিতিশীলতা তৈরি না হয় সে জন্য অযোধ্যায় চার বা তার বেশি লোকের সমবেত হওয়ায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে উত্তর প্রদেশ সরকার।

বিবদমান পক্ষগুলোর মধ্যে মধ্যস্থতার চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় চলতি বছরের ৬ আগস্ট থেকে ভারতের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক আদালতে সংবেদনশীল এ মামলাটির শুনানি শুরু হয়।

রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদের ভূমি দাবিদার পক্ষগুলোর চারটি মামলায় ২০১০ সালে এলাহাবাদ হাই কোর্ট অযোধ্যার বিতর্কিত ওই ২ দশমিক ৭৭ একর জমি বিবদমান তিনটি পক্ষ- সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, নিরমোহি আখড়া ও রাম লালার মধ্যে সমানভাবে ভাগ করে দেওয়ার রায় দিয়েছিল। শীর্ষ আদালতে ওই রায়ের বিরুদ্ধে ১৪টি আপিল জমা পড়ে।

এনডিটিভি বলছে, বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে রামের জন্ম এবং সেখানে থাকা পুরনো মন্দির গুঁড়িয়েই বাবরি মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছিল বলে বিশ্বাস অনেক হিন্দু ধর্মাবলম্বীর। ১৯৯২ সালের ডিসেম্বরে কট্টর হিন্দুত্ববাদীরা ষোড়শ শতকে নির্মিত ওই মসজিদটি ভেঙে ফেললে ভারতজুড়ে ভয়াবহ দাঙ্গা দেখা দিয়েছিল।

কয়েক দশক ধরে চলা এ ভূমি বিরোধ মেটাতে বেশ কয়েকবার মধ্যস্থতার উদ্যোগ নেওয়া হলেও শেষ পর্যন্ত সব চেষ্টাই ব্যর্থ হয়েছে।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর//আরএম

 

 


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।