শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

ফেসবুকের লিব্রায় যুক্ত হল ২১ প্রতিষ্ঠান

প্রযুক্তি ডেস্ক : ফেসবুকের লিব্রা প্রকল্পে এবার স্বাক্ষর করেছে ২১ প্রতিষ্ঠান। সাতটি প্রতিষ্ঠান শুরুর আগে সরে গেলেও এবার যুক্ত হল তার তিন ডাবল, এটাকেই বলে ফেসবুকের ক্যারিশমা।

ডিজিটাল মুদ্রা লিব্রা আনার ক্ষেত্রে প্রথমবারের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো ফেসবুকের ডাকে সাড়া দিয়ে গতকাল সোমবার জেনেভায় প্রথম বৈঠক করেছে। এরপর ওই ২১ প্রতিষ্ঠান লিব্রা আনার বিষয়ে লিব্রা অ্যাসোসিয়েশনে স্বাক্ষর করেছে।

গত জুনে সামাজিক মাধ্যাম জায়ান্ট ফেসবুক তাদের ডিজিটাল মুদ্রা লিব্রার পরিকল্পনা উন্মোচন করার পর প্রথমে যোগ দিতে চাইলেও পরে এসে নিজেদের প্রকল্প থেকে সরিয়ে নিয়েছে সাতটি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে রয়েছে পেপ্যাল, ভিসা, স্ট্রিপ, মেরকাডো পেগো, ইবে এবং মাস্টারকার্ডের মতো প্রতিষ্ঠান।

লিব্রা অ্যাসোসিয়েশন দাবি করেছে, ডিজিটাল মুদ্রা প্রকল্পটিতে যোগ দিতে দেড় হাজারেরও বেশি কোম্পানি আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সোমবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় উবার, লিফ্ট এবং স্পটিফাইসহ অন্য সদস্যরা লিব্রা অ্যাসোসিয়েশন সনদে স্বাক্ষর করেছে।

অ্যাসোসিয়েশনের এক সদস্য সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে বলেছেন, তারা এখনও যে অবস্থায় আছেন তাতে আগামী বছরে লিব্রা আনতে পারবেন। তিনি মনে করেন, যদি এই প্রকল্পে কোনো রেগুলেটরি বাধা না আসে তবেই এটি সম্ভব হয়, অন্যথায় কী হবে এখনি বলা যাচ্ছে না। লিব্রা নিয়ে সব সংশয় দূর করতে আগামী ২৩ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে যোগ দিতে পারেন। ইতোমধ্যে লিব্রা অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান হিসেবে একজন সিইও খুঁজছেন তারা।

ফেসবুক তাদের ক্রিপ্টোকারেন্সি আনার জন্য ইতোমধ্যে একটি আলাদা বিভাগ করে কাজ করেছে। প্রতিষ্ঠানটির এই প্রকল্প নিয়ে নানা সমালোচনা শুরু হয়েছে এখনি। এমনকি বিশ্বের কয়েকটি দেশ প্রতিষ্ঠানটির এই ডিজিটাল মুদ্রা আনার বিপক্ষে রয়েছে। তারা এমন মুদ্রা ব্যবস্থা চায় না বলেও জানিয়েছে।

অনেক প্রযুক্তি বিশ্লেষক অবশ্য ফেসবুকের এই ডিজিটাল মুদ্রা ব্যবস্থাকে সোজা চোখে দেখতে পারছেন না। বরং এর মাধ্যমে ফেসবুকের বড় একটা পতন হবে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করছেন। একই সঙ্গে যুক্তরাজ্য এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কর্মকর্তা, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধানরাও বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

এত কিছুর পর এখন আসলে সময়ের অপেক্ষা করতে হবে। ফেসবুকের লিব্রা বা ডিজিটাল মুদ্রা বাজারে আসে কিনা, আসলেও সেটার গ্রহণযোগ্যতা কিংবা বিভিন্ন দেশের মুদ্রানীতির সঙ্গে সেটি যাবে কিনা, কিংবা কোন কোন দেশ সেটি সাদরে গ্রহণ করে কিনা সেটিও দেখতে হবে।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর//এসটি/ এবিএম


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।