মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

৩৮তম বিসিএসে অংশগ্রহণকারীদের হতাশা

ঢাকা : গেল বছরের ১৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত হয় ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা। এরপর পেরিয়ে গেল ১১ মাস। দীর্ঘ সময়েও ফল প্রকাশ করতে পারছে না সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এ কারণে লিখিত পরীক্ষার ফলাফলের অপেক্ষায় থাকা চাকরিপ্রত্যাশীরা অনেকটা হতাশ হয়ে পড়েছেন।

যদিও পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক জানিয়েছেন, ঈদুল আজহার আগেই প্রকাশ করা হবে ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল। আর একই দিনে ৪০তম প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করারও সর্বোচ্চ চেষ্টা রয়েছে তাদের।

পিএসসি চেয়ারম্যান জানান, এবার খাতা মূল্যায়নের ক্ষেত্রে আমরা অনেক বেশি সতর্ক ছিলাম, যে কারণে ফলপ্রকাশে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। নিখুঁত মূল্যায়ন করতে হলে কিছুটা সময় লাগবেই। এক্ষেত্রে চাকরিপ্রার্থীদের একটু ধৈর্য ধরতে হবে। আমরা তাদের হয়েই কাজ করছি। তাদের নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে কেউ যেন প্রশ্ন তুলতে না পারে সে চেষ্টাই করছে পিএসসি।

তিনি আরও জানান, প্রথমবারের মতো ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার খাতা আমরা দুজন পরীক্ষকের দ্বারা মূল্যায়ন করিয়েছি। কিছু কিছু খাতা তৃতীয় পরীক্ষকের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হচ্ছে। ফলে এই ফল প্রকাশে দেরি হচ্ছে।

এদিকে, ২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট অনুষ্ঠিত ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল প্রায় একছরের কাছাকাছি সময় এসেও প্রকাশ না হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। কয়েকজন শিক্ষার্থী তাদের হতাশার কথা জানান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে লেখাপড়া শেষ করা একজন চাকরিপ্রত্যাশী বলেন, ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা দিয়ে বিয়ে করেছিলাম, সন্তানের বাবাও হয়েছি। কিন্তু লিখিত পরীক্ষার ফলাফল আসেনি। এখন অন্য কোন চাকরিতেও মন বসাতে পারছি না। এই ফলাফলের অপেক্ষা ব্যক্তিগত জীবনেও প্রভাব ফেলেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের আরেক চাকুরিপ্রত্যাশী জানান, বিসিএসে লিখিত দিয়েছি জানলে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে চাকরি পেতে মুশকিল হয়। কারণ ধারণা করা হয় আমরা বিসিএসে টিকে গেলে চলে যাবো। তাছাড়া এমন ঝুলন্ত অবস্থায় কোন কাজেও মন স্থির করা যায় না। পিএসসি যদি বিষয়টি নিয়ে ভাবত তাহলে এতদিন সময় নিতো না। আমাদেরও এমন বাজে সময়ের ভেতর দিয়ে যেতে হতো না।

পিএসসি সূত্র জানায়, ৩৭তম বিসিএস থেকে নন ক্যাডার নিয়োগ এবং ৩৯তম বিশেষ বিসিএসের চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করায় ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষার ফল পিছিয়ে গেছে। এখন পিএসসির সামনে ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ আর ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ ছাড়া তেমন বড় কোন কর্মভার নেই। ফলে লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশে আর বিলম্ব হবে না।

উল্লেখ্য, ৩৮তম বিসিএসের মাধ্যমে জনপ্রশাসনে ২ হাজার ২৪ জন ক্যাডার কর্মকর্তা নিয়োগ করা হবে। যেখানে প্রশাসন ক্যাডারে ৩০০টি, পুলিশ ক্যাডারের ১০০টি পদসহ ৩৮তম বিসিএসে সাধারণ ক্যাডারে মোট ৫২০টি, কারিগরি ও পেশাগত ক্যাডারে ৫৪৯টি এবং শিক্ষা ক্যাডারে ৯৫৫টি পদ থাকছে।

এদিকে, ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারির পরীক্ষা গত মে মাসের ৩ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়েছে। পিএসসির সূত্র জানিয়েছে, প্রিলিমিনারির ওএমআর শিট মার্কিংয়ের কাজ এখনো শুরু করেনি পিএসসি। সেটি জুলাইয়ের আগে শুরু হবে কিনা সে ব্যাপারেও নিশ্চিত কোন তথ্য নেই।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর//জেসি/এমএমআর

 


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।