শিরোনাম
অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহার সাথে থাকা সিফাত আর শ্রিপা এখন কোথায়? স্ত্রীর এই ৪ জায়গায় ভুলেও হাত দেবেন না, দিলেই মহাবিপদ। মেজর সিনহাকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছিল পুলিশ! ঢাকায় নিয়ে বড় স্বপ্ন দেখিয়ে ৫ম শ্রেণির ছাত্রীর সঙ্গে কৃষি কর্মকর্তার কাণ্ড! অবশেষে সুশান্ত মৃত্যুর তদন্তভার পেল সিবিআই, রিয়ার প্যা’নিক অ্যা’টাক, ‘প্লিজ আমায় গ্রেফতার করবেন না!’ এবার জগন্নাথপুরে ভাঙা সড়কে গাড়ির ঝাঁকুনিতে সন্তান প্রসব – বিজ্ঞানীরা করোনার ‘দুর্বলতা’ খুঁজে পেয়েছেন, যেভাবে ঠেকানো যাবে ভাইরাস অভিনেত্রীর আ’ত্মহ’ত্যা! ফে’সবু’ক লা’ইভ করে সু’ইসা’ইড নো’ট লিখে গো’সলের পরে প্রভা, ভিডিও নিজেই ভাইরাল করলেন এবার নিজের অ,ন্তঃস,ত্ত্বা মাকেই বি,য়ে করলেন ছে,লে

শনিবার, ০৮ অগাস্ট ২০২০, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন

১০০ টাকার নোট সিদ্ধ করে তৈরি করতো ৫০০ টাকা

১০০ টাকার আসল নোটকে পানিতে সিদ্ধ করে রঙ তুলে ফেলার পর শুকিয়ে সেটিতেই দেয়া হয় ৫০০ টাকার ছাপ। ফলে টাকার কাগজ ও নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য প্রায় অক্ষুণ্ণ থাকে। ছাপাও এমন নিখুঁত হয় যে

দেখে জাল বলে বোঝার কোনও উপায়ই থাকে না। এতে সহজেই প্রতারণার ফাঁদে পড়েন মানুষ। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে জাল মুদ্রা তৈরিতে জড়িত একটি চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতারের পর সোমবার

(২৯ জুন) গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানায় র‌্যাব-২। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সেলিম, মনির, মঈন, রমিজা বেগম, খাদেজা বেগম ও এক কিশোর (১৫)। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে রোববার রাতে

মিরপুরের ১২/ই ব্লকের ৬২ নম্বর বাসা ও বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার জি-ব্লকের ১৬১ নম্বর বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ সময় চার কোটি (১০০০ টাকার নোট ) জাল টাকা ও ভারতীয় জাল

রুপি (আনুমানিক ৪০ লাখ, ৫০০ ও দুই হাজার রুপির নোট) এবং জাল টাকা তৈরিতে ব্যবহৃত ল্যাপটপ, প্রিন্টার, ডাইস ও কাটার উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়াও প্রায় ২৫/৩০ কোটি টাকার জাল নোট

বানানোর কাঁচামাল (কাগজ, কালি ও জলছাপ দেওয়ার সমাগ্রী) পাওয়া গেছে। র‌্যাব-২ এর সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) জ্যেষ্ঠ এএসপি জাহিদ আহসান জানান, ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে বিপুল

পরিমাণ আর্থিক লেনদেন এবং ব্যস্ততার সুযোগ নিয়ে অসাধু চক্র দেশব্যাপী জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করছিল। বিশেষ করে কোরবানির পশুর হাটের লেনদেনকে কেন্দ্র করে জাল টাকার কারবারিরা

বেপরোয়া হয়ে ওঠে। তারা আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিভিন্ন পদ্ধতিতে জাল টাকা তৈরি করে বাজারে ছাড়ছে। ১০০ টাকার নোট সিদ্ধ করে তাতে ৫০০ টাকার ছাপ এবং বিশেষ রং, কাগজ ও প্রিন্টার

ব্যবহার করে এক হাজার টাকার জাল নোট তৈরি করে আসছিল তারা। গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, তারা সবাই জাল টাকা তৈরির সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। তাদের মধ্যে মনিরকে জাল টাকা ছাপানোর কাজে সহযোগিতা করত মঈন। সে প্রিন্ট করা টাকা নির্দিষ্ট আকার অনুযায়ী কেটে নেয়ার পরিকল্পনা করেছিল। রমিজা বেগম কাগজে আঠা লাগানোর কাজে সেলিমকে সহায়তা করত। সাদা কাগজে নকল নিরাপত্তা সুতা বসিয়ে জলছাপ দেয়ার কাজ করত খাদিজা বেগম ও এক কিশোর।


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।