মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:১৫ পূর্বাহ্ন

মোদি ছাত্র ছিলেন না তাই ছাত্রদের প্রতি সহানুভূতি নেই : নাসিরউদ্দিন শাহ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের তীব্র প্রতিবাদ চলছে। এই আইনটি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশি নির্যাতনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন বলিউড তারকারাও। এবার শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে এক হাত নিলেন প্রখ্যাত অভিনেতা ও নাট্যব্যক্তিত্ব নাসিরউদ্দিন শাহ।

তার কাটকাট কথা, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে ছাত্র ছিলেন না বলেই বোধহয় ছাত্রসমাজের প্রতি তার কোনো সহানুভূতি নেই।

সোমবার একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করেছেন বলে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে।

স্পষ্টভাষী হিসেবে সুবিদিত নাসিরউদ্দিন শাহ বলেন, তিনি নিজেকে কোনদিনও মুসলিম ভাবেননি। আজও ভাবেন না। সচেতন নাগরিক হিসেবেই ক্রুদ্ধ বোধ করছেন।

তিনি বলেন, জানি না আমার বার্থ সার্টিফিকেট আছে কি না। এত বছর এ দেশে কাজ করছি। পরিবারের বাকিরা কেউ পুলিশে, কেউ প্রশাসনে, কেউ সেনাবাহিনীতে কাজ করে এসেছে। আজ যদি ভারতীয় নাগরিকের প্রমাণ দিতে হয়, তাতে উদ্বেগ নয়, ক্রোধই জন্মায়। আমি উদ্বিগ্ন নই, আমি ক্রুদ্ধ।

বিজেপি সরকারের ‘প্রধান বৈশিষ্ট্য ছাত্রসমাজের প্রতি বিদ্বেষ’ এমন মন্তব্য করে এই বলিউড ডন বলেন, তারা নিজেরা কখনও ছাত্র ছিলেন না, বিদ্যাচর্চায় আগ্রহ দেখাননি কখনও, তার জন্যই হয়তো এই বিদ্বেষ। ছাত্ররা হল সেই গোষ্ঠী, যারা চিন্তা করে দেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে। বড় হলে তাদের জন্য কী ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করছে, এটা তাদের ভাবতে হয়। প্রধানমন্ত্রী সেই গোষ্ঠীর অংশ ছিলেন না তাই তাদের প্রতি তার সহানুভূতিও নেই। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ডিগ্রির কথা সামনে আসার আগে উনি নিজে কিন্তু বলতেন আমি পড়াশোনাই করিনি।

সম্প্রতি নাগরিকত্ব আইনকে ঘিরে গোটা ভারতে যে স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদের ঢল নেমেছে সেটিকে আশাব্যঞ্জক বলে মনে করেন নাসিরউদ্দিন শাহ।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর // এবিএম


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।