শিরোনাম
ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছয় মাসের অ’ন্তঃসত্ত্বা, সন্তানের বাবা কলেজ ছাত্র আটক এবার মোবাইল নম্বরে কথা বলা যাবে ফেসবুক দিয়ে! ধর্ষণে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, দাদা কারাগারে ফোনে মিসড কল আসায় স্ত্রীকে গাছে বেঁধে গরম লোহার ছ্যাঁকা এত মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল যে গুনে শেষ করা যাবে না: নোবেল টাঙ্গাইলের যৌনপল্লী রূপ নিয়েছে ভুতুড়ে নগরীতে: যৌনকর্মীরা কষ্টে দিন পার করছে তারা জোর পূর্বক আমাকে বিয়ে দিয়েছে, আপত্তিকর অবস্থায় কেউ পায়নি: ভাইস-চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন কেন ভুঁড়িওয়ালা পুরুষকেই বেশি বিশ্বাস করেন নারীরা? টয়লেটে পড়ে যাওয়া মোবাইল তুলতে গিয়ে মা-ছেলের মৃত্যু ঝাড়ফুঁকের নামে প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ করল কবিরাজ

শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ০৯:৪৩ অপরাহ্ন

পাপিয়ার পাপের সদর দফতর ছিল ওয়েস্টিন

ঢাকা : রাজধানী ঢাকার অভিজাত হোটেল ওয়েস্টিনকেই সব ধরনের অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সদর দফতর বানিয়েছিলো আলোচিত যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী পাপিয়া। অর্থ আর দলীয় পরিচয় ব্যবহার করে এখান থেকেই বিভিন্ন হোটেল ও আবাসিক এলাকায় বিস্তৃত করা হয় সম্রাজ্য। আড়ালে সহযোগী হিসেবে কাজ করেছে ওয়েস্টিন কর্তৃপক্ষ।

একজন জেলাপর্যায়ের নেত্রীর পরিচয়ে রাজধানীর গুলশান এলাকায় কীভাবে সম্ভব ! তদন্ত করতে গিয়ে অবাক হয়েছেন কর্মকর্তারা। সহযোগী ছাড়াও পাঁচ তারকা হোটেলে পাপিয়ার বালাখানায় কারা আসা যাওয়া করতো তালিকা ধরে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

সুন্দরী তরুণীদের দিয়ে ব্যবসায়ী, সমাজের গুরুত্বপুর্ণ ব্যক্তিদের ফাঁদে ফেলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে নরসিংদির ‘ট্যাটু বাহিনী’ প্রধান পাপিয়া।

চাকরি দেয়ার নাম করে অসহায় সুন্দরী তরুণীদের ওয়েস্টিন হোটেলে এনে বাধ্য করা হতো অনৈতিক কাজে। এসব তরুণীদের ঘিরেই বিকৃত রঙ্গমঞ্চ তৈরি করা হয় হোটেলের প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুটে।

এখানে পাপিয়া বাহিনীর কর্মকাণ্ড ছিলো ওপেন সিক্রেট । শুধু খদ্দের আনাই নয়, বিশেষ কক্ষে ওয়েস্টিনের কর্নধার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুর আলীর সঙ্গেও খোলামেলা খোশগল্পে মেতে উঠতো কথিত যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী পাপিয়া। যে ভিডিও এখন ভাইরাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওতে পাপিয়ার সাথে ওয়েস্টিন কর্ণধারের ঘনিষ্ঠতার চিত্র ফুটে উঠে। গেলো জাতীয় নির্বাচনে দোহার নবাবগঞ্জ এলাকায় একজন প্রার্থীকে কীভাবে কোটি কোটি টাকা আর জাল ভোটের মাধ্যমে পাস করিয়েছেন সে কথাই অবলীলায় বলা হচ্ছে পাপিয়াকে।

এছাড়াও পাঁচ তারকা হোটেলটিতে ব্যাপক কদর ছিলো পাপিয়ার। কারণ স্পেশাল পার্টি আর এক্সক্লুসিভ বারে অবৈধ বিদেশী মদের বিল গুণতেন প্রতিদিন গড়ে আড়াই লাখ টাকা। পাপিয়া গেলো এক বছরে প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুটের ভাড়াই দিয়েছে পৌনে ২ কোটি টাকা।

ওয়েস্টিনের সবচেয়ে ব্যয়বহুল সুরক্ষিত প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুট অনির্দিষ্টকালের জন্য পাপিয়ার নামে বুকিং ছিলো। কীভাবে পাপিয়া বাহিনী এসব অপকর্ম কুকর্ম চালাতো, সে বিষয়ে কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি ওয়েস্টিনের পক্ষ থেকে।

পাপিয়ার সাথে ঘনিষ্ঠতার ভাইরাল হওয়া ভিডিওর ব্যাপারে জানতে বারবার যোগাযোগ করেও সাড়া মেলেনি ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুর আলীর।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, পাপিয়ার সহযোগীদের ব্যাপারেও তদন্ত করছেন তারা।

স্বদেশ টুয়েন্টিফোর // এবিএম


পোস্ট টি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

স্পন্সরড নিউজ

সম্পাদক:
আসিফ সিরাজ

প্রকাশক:
এইচ এম শাহীন
চট্টগ্রাম অফিসঃ
এম বি কমপ্লেক্স (৩য় তলা), ৯০ হাই লেভেল রোড, ওয়াসা মোড়, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ
বার্তা কক্ষঃ ০১৮১৫৫২৩০২৫
মেইলঃ news.shodesh24@gmail.com
বিজ্ঞাপনঃ ০১৭২৪৯৮৮৩৯৯
মেইলঃ ads.shodesh24@gmail.com
কপিরাইট © ২০১৮ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | স্বদেশ২৪.কম
সেল্ফটেক গ্রুপের একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।